ব্যবসায়ী ও চলচ্চিত্র প্রযোজক আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের গুলশানের বাসায় অভিযান চালিয়েছেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা। এখানে মিনি বার ও ক্যাসিনোর সরঞ্জাম পাওয়া গেছে। এই ক্যাসিনোটিতে বাংলাদেশি মুদ্রায় নয়, খেলা হতো মার্কিন ডলারে।কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, অভিযানের সময় বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, গাঁজা, ইয়াবা, সিসা ও ক্যাসিনো সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।রোববার বিকালে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক খুরশিদ আলমের নেতৃত্বে অভিযান চলে। এখান থেকে নবীন ও পারভেজ নামে দুই কেয়ারটেকারকে আটক করা হয়েছে। বাসাটির দেখাশোনা করতেন আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের ভাই ও বোন। দীর্ঘদিন ধরে আজিজ মোহাম্মদ ভাই পলাতক।খুরশিদ আলম বলেন, গুলশান-২-এর ৫৭ নম্বর রোডের ১১/এ নম্বরে আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের বাসায় ক্যাসিনো এবং ছাদে মিনি বার পাওয়া গেছে। তার বাসা থেকে বিপুল বিদেশি মদ ও সিসার উপকরণ জব্দ করা হয়েছে। তবে অভিযানকালে আজিজ মোহাম্মদ ভাই বাসায় ছিলেন না।মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিদর্শক মোশারফ হোসেন বলেন, সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন ক্যাসিনোতে অভিযান পরিচালিত হয়েছে। এগুলোতে খেলা চলত বাংলাদেশি মুদ্রায়। কিন্তু এই বাসার ক্যাসিনোতে খেলা চলত ডলারের মাধ্যমে। এখানে এক সেন্ট থেকে একশ’ ডলার পর্যন্ত কয়েন পাওয়া যেত। এই কয়েন দিয়েই খেলা চলত। এতেই বোঝা যায়, এখানে হাইপ্রোফাইল মানুষ খেলতে আসতেন।’এছাড়া ক্যাসিনোটিতে সব ধরনের আধুনিক সুবিধা রয়েছে, এটি খুবই সুসজ্জিত। এখানে মদ থেকে শুরু করে সিসা, গাঁজাসহ সব ধরনের মাদক সরবরাহ করা হতো বলে জানান মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিদর্শক মোশারফ হোসেন।আটক হওয়া পারভেজ দাবি করেন তিনি এ মাসেই এ বাড়িতে চাকরি নিয়েছেন। আর নবীন জানান, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় থেকে আজিজ মোহাম্মদ ভাই দেশে নেই। তার বোন ও ভাই এ বাসার দেখাশোনা করতেন।প্রসঙ্গত, দেশের চলচ্চিত্র জগতের বহুল পরিচিত মুখ এবং আলোচিত-সমালোচিত ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাই। নামের সঙ্গে ভাই শব্দটি তাদের বংশ পদবি। তাদের পরিবারের সবার নামের শেষেই এই পদবি আছে। তার বাবার নাম মোহাম্মদ ভাই। মায়ের নাম খাদিজা মোহাম্মদ ভাই।১৯৪৭-এ দেশভাগের পর তাদের পরিবার ভারতের গুজরাট থেকে বাংলাদেশে আসে। পরিবারটি মূলত পারস্য বংশোদ্ভূত। তারা বাহাইয়ান সম্প্রদায়ের লোক। বাহাইয়ানকে সংক্ষেপে বাহাই বলা হয়। উপমহাদেশের উচ্চারণে এই বাহাই পরবর্তী সময়ে ভাই হয়ে যায়। ধনাঢ্য এই পরিবার পুরান ঢাকায় বসবাস শুরু করে। ১৯৬২ সালে আজিজ মোহম্মদ ভাইয়ের জন্ম হয় আরমানিটোলায়।আজিজ মোহাম্মদ ভাই মূলত একজন ধনাঢ্য ব্যবসায়ী। প্রায় ১১টি ইন্ডাস্ট্রির মালিক তিনি। এছাড়া মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, হংকং, সিঙ্গাপুরে রয়েছে তার উঁচুমানের রিসোর্ট।১৯৯৬ সালে প্রতারণার মাধ্যমে শেয়ার বাজার থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ ও আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে বিএসইসি। এই শেয়ার কেলেঙ্কারির মামলায় গত বছরের ২৯ আগস্ট আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা (ওয়ারেন্ট) জারি করেন ঢাকার একটি ট্রাইব্যুনাল। এখন তিনি পলাতক রয়েছেন।