মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৮:৩৮ পূর্বাহ্ন

Notice :
Welcome To Our Website...
সংবাদ শিরোনাম :
magura আ,লীগ প্রার্থী সাইফুজ্জামান শিখরের নৌকা প্রতিক গ্রহন ঐক্যফ্রন্ট ও জোটের ৬০ প্রার্থী জামায়াত-এলডিপিসহ ২০ দল ৪০ গণফোরাম ৭ জেএসডি ৫ নাগরিক ঐক্য ৫ কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ৩ জাপার সঙ্গে আ.লীগের আসন জটিলতা কাটেনি মাগুরায় মুক্ত দিবসে বিজয় র‌্যালী উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট দিন -সাইফুজ্জামান শিখর মাগুরায় গ্রাম-পুলিশদের জন্য থানা চত্তরে বিশ্রামাগার নির্মান কোনো অপশক্তিই নৌকার গতি রোধ করতে পারবে না : আব্দুর রহমান মাশরাফি’র ভোট ক্যাম্পেইন করতে নাগরিক প্লাটফরম গঠনের উদ্যোগ এইচআইভি সম্পর্কে আপনার ভুল ধারণাগুলো শুধরে নিন যশোরে তৈরি ক্যারম বোর্ড যাচ্ছে সারা দেশে
খালেদার ‘মাইল্ড স্ট্রোক’ হয়েছিল, ইউনাইটেডে ভর্তির পরামর্শ

খালেদার ‘মাইল্ড স্ট্রোক’ হয়েছিল, ইউনাইটেডে ভর্তির পরামর্শ

নিউজ ডেস্ক :
কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ‘মাইল্ড স্ট্রোক’ করেছিলেন বলে ধারণা করছেন তার চিকিৎসকেরা। শনিবার বিকালে খালেদাকে দেখতে কারাগারে যান তার ব্যক্তিগত চার চিকিৎসক। সেখান থেকে বের হয়ে একথা বলেন তার চিকিৎসকরা।
দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় পর বেরিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী সাংবাদিকদের বলেন, গত ৫ জুন তিনি (খালেদা) হঠাৎ করে পড়ে গিয়েছিলেন। তিনি ওই সময়টার কথা বলতে পারছেন না। তার একটি মাইল্ড স্ট্রোক হয়েছে বলে আমাদের কাছে প্রতীয়মান হচ্ছে। এটা মেজর স্ট্রোক। উনি এখন কথা বলেন একটু আস্তে আস্তে। ভালো ভাবে কথা বলতে পারে না যেটা সবচেয়ে বিপদজনক, টিআইএ যদি কারো হয় তাহলে তার সামনে বড় ধরণের স্ট্রোক হওয়া সম্ভবনা বেশি থাকে আছে।
খালেদা জিয়ার অনেকগুলো মেডিকেল টেস্ট করা দরকার জানিয়ে তিনি বলেন, বেগম জিয়ার কতগুলো পরীক্ষা করা দরকার। যেগুলো কারাগারে নেই। তাই আমরা উনাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে নিয়ে টেস্ট করার জন্য অনুরোধ করেছি। সেই সঙ্গে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তির মাধ্যমে চিকিৎসা দেয়ার জন্যও দাবি জানিয়েছি।
বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসা নিয়ে চার পৃষ্ঠার একটি সুপারিশমালা কারা কর্তৃপক্ষকে দিয়েছেন বলেও জানান অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী। খালেদা জিয়াকে কেমন দেখেছেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, উনার কথায় কিছুটা জড়তা আছে, তবে কমিউনিকেশন করতে পারছেন।
সিদ্দীকী জানান, সমস্ত পরীক্ষা- নিরীক্ষা করে আমাদের যে মেডিকেল টিম, তাদের সমস্ত মতামত ও অবজারভেশনগুলো সম্পূর্ণ লিখে আমরা জেল কর্তৃপক্ষকে দিয়েছি। আমরা চার পৃষ্ঠার একটি মেডিক্যাল রির্পোট দিয়েছে, যেখানে সম্পূর্ণভাবে উল্লেখ আছে, কী ঘটেছে, কী হয়েছে এবং সামনে তার কী পরীক্ষা করা উচিত।
এর আগে বিকেল ৪ টায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেখতে কারাগারে প্রবেশ করেন ৪ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। তারা হলেন, মেডিসিনের প্রফেসর ডা. এফ এম সিদ্দীকী, নিউরো সার্জন প্রফেসর ডা. ওয়াহিদুর রহমান, চক্ষু বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. আবদুল কুদ্দুস। এছাড়া বেগম জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. মোহাম্মাদ আল মামুন। বিকেল সোয়া ৩ টায় সরকারের পক্ষে কারাগারে প্রবেশ করেন সিভিল সার্জন এহসানুল কবির।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




  • ডিজাইনঃবেসিক নিউস২৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com