নৌকা এ দেশের উন্নয়নের প্রতিক : আজিজুল ইমাম চৌধুরী

সমগ্র বাংলা

সাহেব, দিনাজপুর প্রতিনিধি :
দিনাজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্ম না হলে এ দেশ স্বাধীনতা পেত না। আর তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা না হলে এ দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি হত না উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের উত্তোরণের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে এবং ক্ষুধাও দারিদ্রমুক্ত দেশ প্রতিষ্ঠা করতে শিক্ষিত জনগোষ্ঠী গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ দিয়েছে। তিনি বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে দেশ হবে একটি উন্নত দেশ। এই ধারবাহিকতা বজায় রাখার জন্য এবং ক্ষুধাও দারিদ্র মুক্ত দেশ গড়তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো শিক্ষিত জনগোষ্ঠী। এই শিক্ষিত জনগোষ্ঠী সৃষ্টি করাই শেখ হাসিনার লক্ষ্য। তিনি বলেন, নৌকা এ দেশের উন্নয়নের প্রতিক। আর এ উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় নিয়ে আসতে হবে।
২৫ জুলাই বুধবার আজিজুল ইমাম চৌধুরী দিনাজপুর রামসাগর প্রাঙ্গনে সদর উপজেলার ৯নং আস্করপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আয়োজনে এবং হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে অব্যাহত রাখতে বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন বলেন, দিনাজপুর সদর উপজেলায় ১৬’শ কোটি টাকার উন্নয়ন হয়েছে। গ্রামের প্রতিটি রাস্তা পাকা হয়েছে। বিদ্যুত সকলের ঘরে ঘরে আলোকিত হয়েছে।শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কৃষি খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। বক্তারা বলেন, হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির নেতৃত্বে এসব উন্নয়ন ও অগ্রগতি আরও ধাবিত হচ্ছে। শুধু তাই নয় ক্রীড়াঙ্গনে বিশ্বের দরবারে পৌছে দিয়েছে। দিনাজপুরের ক্রীড়াঙ্গন খেলোয়াড়রা এখন জাতীয় পর্যায়ে প্রতিনিধিত্ব করছে। আর এসব উন্নয়ন দেখে বিএনপি-জামাতরা আবল তাবল বকছে। তারা এ উন্নয়ন সহ্য করতে পারছে না বলে সকল ধরনের ষড়যন্ত্র করছে। বক্তারা বলেন, দুর্নীতির দায়ে খালেদা জিয়া এখন জেলে। জেলে থেকেও তার নির্দেশে পাকিস্তানি বাহীনির দোসররা বিএনপি-জামাত এ দেশকে আবারও পাকিস্তানী শাসন কায়েম করতে বিভিন্ন রকম ষড়যন্ত্র শুরু করছে। কিন্তু জনগণই এ ষড়যন্ত্র প্রতিহত করেছে।
জিয়াউর রহমান জিয়া বলেন, বিগত দিনাজপুরের ভয়াবহ বন্যায় হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বন্যার্তদের পাশে দাড়িয়েছিলেন। খাদ্য, নগদ অর্থ ও বাসস্থান দিয়ে বন্যার্তদের রক্ষা করা হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই দিনাজপুরে এসে চাল, ডাল দিয়ে গেছেন।
৯নং আস্করপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো: খতিব উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে ও ৯নং আস্করপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জিয়ার পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: ফরিদুল ইসলাম, ৯নং আস্করপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোশাররফ হোসেন, দিনাজপুর কোতয়ালী আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদ সরকার, সাধারন সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাতলুবুল মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক মানিক রঞ্জন বসাক, ৮নং শংকরপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহ জামাল সরকার, ১০ নং কমলপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আহসান হাবিব সরকার, কোতয়ালী যুবলীগের সাধারন সম্পাদক নুরে আলম, দিনাজপুর পৌরসভার কাউন্সিলর মাসতুরা বেগম পুতুল, মাকসুদা পারভীন মিনা প্রমুখ। এছাড়া ৯নং আস্করপুর ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *