ব্রিটেনের কাছে জিএসপি চায় বাংলাদেশ

leadnews অর্থনীতি

নিউজ ডেস্ক :
ব্রেক্সিটের (ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বের হয়ে যাওয়া) পর ব্রিটেনের কাছে জিএসপি (অগ্রাধিকারমূলক বাজার সুবিধা) প্লাস বাণিজ্য সুবিধা চায় বাংলাদেশ। রোববার দুপুরে বাংলাদেশ সফররত বৃটিশ এমপি রুশনারা আলীর সঙ্গে বৈঠক শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ সাংবাদিকদের একথা জানান।
যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশি পণ্যের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। এদেশ থেকে পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে তৃতীয় বৃহত্তম বাজার হলো বৃটেন। এ কারণে বাণিজ্য ক্ষেত্রে বাংলাদেশের কাছে দেশটির গুরুত্ব অনেক। ব্রেক্সিটের পর ব্রিটেনের সঙ্গে এদেশের বাণিজ্য আরও বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা হচ্ছে।
রুশনারা আলীর সঙ্গে বৈঠক শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘বাংলাদেশ বৃটেনের ঘনিষ্ঠ বন্ধু। বর্তমানে উভয় দেশের বাণিজ্যের পরিমান প্রায় চার বিলিয়ন মার্কিন ডলার। যা আরো বাড়ানো সম্ভব। বৃটেনও বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহী।’
বৃটিশ এমপি রুশনারা আলী সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ বৃটেনের ঘনিষ্ঠ বন্ধু রাষ্ট্র। আমরা এদেশের উন্নয়নের অংশীদার। বৃটিশ ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। উভয় দেশের আন্তরিক প্রচেষ্টায় দু’দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ আরও বৃদ্ধি করা সম্ভব।’
ইউরোপীয় ইউনিয়নের ইবিএ (এভরিথিং বাট আর্মস) এর আওতায় বাংলাদেশ বৃটেনের কাছ থেকে ডিউটি ফ্রি ও কোটা ফ্রি বাণিজ্য সুবিধা পেয়ে আসছে। ব্রেক্সিট কার্যকর হলে পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে ব্রিটেনের কাছ থেকে এই সুবিধা আর পাবে না এদেশের ব্যবসায়ীরা। এ কারণে বাণিজ্য সুবিধা হিসেবে যুক্তরাজ্যের কাছে জিএসপি ( অগ্রাধিকারমূলক বাজার সুবিধা) প্লাস সুবিধা চায় বাংলাদেশ। এ লক্ষ্যে দেশ দু’টি আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *