• Sun. Apr 21st, 2024

Basic News24.com

আমরা সত্য প্রকাশে আপোষহীন

মাগুরার শ্রীপুরে মহিলা আইনজীবীর উপর মধ্যযুগীয় কায়দায় হামলা 

Bybasicnews

Jul 5, 2023

মাগুরা প্রতিনিধি : মাগুরার শ্রীপুরে প্রতিবেশীর হামলায় ঢাকা জজ কোর্টের আইনজীবী এ্যাডভোকেট রাবেয়া খাতুন সুমি (৩৬) ও তার পরিবারের ৩ সদস্য মারাত্বক আহত হয়েছে। গত রবিবার ২ জুলাই দুপুর ২.৩০ টার সময় শ্রীপুর উপজেলার দ্বারিয়াপুর ইউনিয়নের ঘশিয়াল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত অন্য সদস্যরা হলেন, তার বড় বোন মনোয়ারা বেগম (৬৮), ভাতিজা মিরাজ হোসেন (১৯) ও মুরাদ হোসেন (১৫)। শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকার পর এ্যাডভোকেট রাবেয়া খাতুন সুমিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যায় এ্যাডভোকেট রাবেয়া খাতুন সুমি বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জমিজমা সংক্রান্ত পারিবারিক বিরোধের জেরে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। গত ২২ জুন আদালতের নোটিশ বাদীর বাড়িতে যাওয়ায় ওই আইনজীবীর পরিবারের উপর হামলা করে প্রতিবেশী শহর আলী মণ্ডল ও তার ছেলে অপু মণ্ডল। এ ঘটনায় সুফিয়ার শেখ (৫৫) মারাত্বক আহত হয়। এ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো হামালার ঘটনা ঘটে। যার ফলে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে পরিবারটি। রবিবার দুপুর ২.৩০ টার সময়ে ঘসিয়াল ব্রীজের সামনে মিরুলের চায়ের দোকানের পাশে এ বিরোধের এ ঘটনায় গ্রাম্য শালিস বসে। শালিসের মাঝে সাহরিয়ার অপু, তৌফিক ইমাম বাঁধন, শহর মণ্ডলসহ বেশ কয়েকজন আইনজীবীর পরিবারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং অতর্কিত হামলা চালায়। প্রায় ৩ লাখ টাকা মূল্যের স্বর্নের চেইন ও ব্যাচলেটসহ নগদ টাকা জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পরশ মণ্ডল নামে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী এ্যাড. রাবেয়া খাতুন সুমি বলেন, জমিজমা বিষয়ে প্রতিবেশী শহর আলীর সাথে আমার আদালতে একটি মামলা চলছে। এর আগে আদালত থেকে সমন আসায় তারা আমার পরিবারের উপর হামলা করে। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ করেছি। পরবর্তীতে গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা শালিসে বসে। শালিসের মধ্যেই ওরা আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। আমাকে, আমার বোন ও ২ ভাতিজাকে তারা মেরে মারাত্মক আহত করে। আমি এ ঘটনার সঠিক বিচার চাই। এ বিষয়ে অভিযুক্ত অপু মণ্ডল বলেন, শালিসের মধ্যে উনারাই আমাদের উপর চড়াও হয়েছে। এ সময় মারামারির কোন ঘটনা ঘটেনি। এ বিষয়ে শ্রীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাঞ্চন কুমার রায় বলেন, ঘটনার পর পুলিশ সেখানে গিয়েছিলো। ঘটনাস্থল থেকে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছিলো। এ বিষয়ে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা রজু হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *